আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদেরও বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

এবার ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীরাও বিদেশে প্রশিক্ষণ, সেমিনার ও কর্মশালায় অংশ নিতে পারবেন না। এমনকি তারা ব্যক্তিগত খরচেও বিদেশে ভ্রমণে যেতে পারবেন না।

বিদেশে গিয়ে বা দেশে বসে বৈদেশিক মুদ্রা খরচ করে এ ধরনের কোনো কার্যক্রমে অংশ নিতে বা এ খাতে কোনো ডলার ছাড় না করতে রোববার ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এর আগে গত সপ্তাহে অর্থ মন্ত্রণালয় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি রাষ্ট্র মালিকানাধীন ব্যাংকের কর্মকর্তাদের বিদেশ সফর নিষিদ্ধ করে।

পরে বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের নিজেদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিদেশ ভ্রমণ বন্ধ করে। এ নির্দেশনার ফলে বেসরকারি খাতের কোনো ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী অফিশিয়াল কোনো কাজে বিদেশ যেতে পারবেন না।

এরপর অধস্তন আদালতের বিচারকদের জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বিদেশ ভ্রমণের আবেদন না করতে নির্দেশনা আসে।

সার্কুলারে বলা হয়, বর্তমানে সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত, আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মী, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মী, ব্যাংকিং প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অনুষদ সদস্য, বাংলাদেশে নিবন্ধিত ও কর্মরত কোম্পানি, ফার্ম, ইনস্টিটিউট, এনজিওর কর্মকর্তাদের পক্ষে বিদেশে প্রশিক্ষণ, সেমিনার ও কর্মশালায় অংশ নিতে অংশগ্রহণ ফি বাবদ ব্যাংকগুলো বৈদেশিক মুদ্রা ছাড় করতে পারে।

তবে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ ধরনের কাজে তাদের অনুকূলে বৈদেশিক মুদ্রা ছাড় করা যাবে না।

Sharing is caring!