দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা

দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজের দোকান কর্মচারীর হাতে এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ী খুন হওয়ার রেশ কাটতে না কাটতেই দেশটির জোহানসবার্গে ডাকাতের গুলিতে আরও এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তার নাম মোহাম্মদ তামিম (২৯)।
শুক্রবার (১৮জুন) স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় জোহানেসবার্গের লেনাসিয়া নামক এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় প্রবাসীরা জানান, সন্ধ্যা ৬টার দিকে ডাকাতির উদ্দেশে অস্ত্রসহ কয়েকজন যুবক তামিমের দোকানে ঢুকে। লুটপাট শেষে চলে যাওয়ার সময় ডাকাত দল তামিমকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এ সময় ঘটনাস্থলেই নিহত হন তামিম।

তামিমের গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার কোম্পানিগঞ্জের ভূইয়ার হাটে।

এর আগে আফ্রিকার মালাউইতে কর্মচারীর আঘাতে ঘুমন্ত অবস্থায় এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ী গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। জোহানেসবার্গের রেন্ডপন্টিন এলাকায় বাংলাদেশি মিজানুর রহমানের নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের ছোট ভাই সোহেল তার আত্মীয়স্বজনদের জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতে খাওয়ার পর দোকান বন্ধ করে মিজানুর রহমান ঘুমাতে যান। ঘুমাতে যাওয়ার পর তার স্থানীয় নিগ্রো কর্মচারীর সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কর্মচারী লোহার রড দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। পরদিন ভোরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর মঙ্গলবার ভোরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে সাউথ আফ্রিকায় থাকা ছোটভাই সোহেল বুধবার ঘটনাস্থলে আসেন এবং হাসপাতালে থাকা তার বড়ভাই মিজানুর রহমানের লাশ শনাক্ত করেন। বুধবার এ খবর নিজ বাড়িতে আসলে মা, স্ত্রী ও আত্মীয়স্বজনদের মধ্যে শোকের মাতম শুরু হয়।

নিহত মিজানুর বৃদ্ধা মা, স্ত্রী, ১ কন্যাসন্তানসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন বলে এলাকার চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান নিশ্চিত করছেন।

এদিকে দক্ষিণ আফ্রিকায় একের পর এক বাংলাদেশি হত্যার শিকার হওয়ায় আতঙ্কে আছেন বাংলাদেশিরা। উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় নিজেদের নিরাপত্তা বিধানে বাংলাদেশ দূতাবাসের কার্যকর উদ্যোগ কামনা করেছেন প্রবাসীরা

Sharing is caring!