সরকারের ভুল ধরছে পুলিশ

পুলিশ এই সরকারকে টিকিয়ে রেখেছে সেটা এখন একটি ‘ওপেন সিক্রেট’। এতে স্পষ্ট বোঝা যায় দেশে সরকারের চেয়ে পুলিশের ক্ষমতা অনেক বেশি। তবে কতটা বেশি তা আবারও প্রমাণ হয়ে গেল পুলিশের বক্তব্যে। তারা স্পষ্ট বলছে সরকার ভুল করেছে! নাকি পুলিশ সরকারকে ভুল প্রমাণ করে তাদের আইজিপিকে রক্ষার চেষ্টা করছে।

বিছানার চাদর ও বালিশের কভার কিনতে নয়, বরং এসব জিনিসে ব্যবহৃত উপকরণের মান যাচাইয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শকের জার্মানিতে যাওয়ার কথা ছিল। বিভিন্ন পণ্যের প্রাক্‌–জাহাজীকরণের আগে মান যাচাইয়ের বাধ্যবাধকতা আছে। সে কারণেই এই সফর। সরকারি আদেশে অনিচ্ছাকৃত ভুল থেকে এই বিভ্রান্তির উৎপত্তি বলে পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) মো. কামরুজ্জামান এক খুদে বার্তায় জানিয়েছেন।

পুলিশ যেন চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখাতে চাচ্ছে সরকারি কাজে ভুল-ভ্রান্তি থাকে। আবার প্রশ্ন উঠেছে সরকারের মাথায় কি কাঁঠাল ভেঙে খেতে চাচ্ছে পুলিশ?

পুলিশ সদর দপ্তর বলছে, এ সফরকে কেন্দ্র করে যে সরকারি আদেশ বা জিও জারি হয়েছিল, তাতে অসাবধানতাবশত ভুল রয়েছে। আপাতদৃষ্টে জিওটি পড়লে মনে হয়, পুলিশ মহাপরিদর্শক এক লাখ বিছানার চাদর ও বালিশের কভার কিনতে জার্মানিতে যাচ্ছেন। অথচ বিষয়টি তা নয়। চাদর ও বালিশের কভার—কোনোটিই বিদেশ থেকে আমদানি করা হচ্ছে না। জিওর শব্দগত বিন্যাসের কারণেই এ ধরনের বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে।

মো. কামরুজ্জামান বলেন, পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রুল (পিপিআর) অনুসরণ করেই কেনাকাটার কাজটি হচ্ছিল। এ ক্ষেত্রে যিনি বা যাঁরা কিনছেন, তাঁর বা তাঁদের উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এবং উৎপাদনসংশ্লিষ্ট কাঁচামাল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের বাধ্যবাধকতা আছে। এর অংশ হিসেবেই এ সফর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

Sharing is caring!