ফরাসি মন্ত্রীর মন্তব্যে ক্ষুব্ধ ইসরায়েল, রাষ্ট্রদূতকে তিরস্কার

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের চালানো হামলার নিন্দা জানানোয় ফ্রান্সের ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছে দখলদার ইসরায়েল সরকার। তেলআবিবে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূত ইরিক ডানোনকে তলব করে কঠোর তিরস্কার করেছেন ইসরাইলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী গাবি আশকেনাজি। ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়েভেস লি ড্রিয়ানের করা মন্তব্যের জবাবে বৃহস্পতিবার তাকে তিরস্কার করা হয়।

গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর সাম্প্রতিক হামলার বিষয়ে রবিবার এক প্রতিক্রিয়ায় ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ইয়েভস লে ড্রিয়ান বলেন, ইসরায়েল ক্রমেই একটি জাতিবিদ্বেষী রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে। দুই রাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধানের পন্থাকে পুনরুজ্জীবিত করা না হলে ইসরায়েল দীর্ঘ মেয়াদে জাতিবিদ্বেষী রাষ্ট্রে রূপান্তরিত হবে।

ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে তেল আবিব। দেশটির রাষ্ট্রদূত এরিক ড্যাননকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে নিয়ে ইসরায়েল ঐ মন্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে।

ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গ্যাবি আশকানাজি বলেছেন, ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ইয়েভসের মন্তব্য অগ্রহণযোগ্য, ভিত্তিহীন এবং অসত্য।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুও এক টুইট বার্তায় ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই মন্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করে বলা হয়, এটি অগ্রহণযোগ্য, ভিত্তিহীন, বাস্তব বিবর্জিত এবং ইসরাইল সম্পূর্ণরূপে এটি প্রত্যাখ্যান করছে।

তেল আবিবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইসরাইল একটি গণতান্ত্রিক, আইন-শাসিত দেশ। কাজেই এসব কিছুকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে এমন চেষ্টার জোরালো প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ইসরাইল আশা করে তার বন্ধুরা নিজেদের দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে প্রকাশ করবে না, যাতে উগ্রবাদ ও ইসরাইলবিরোধী পদক্ষেপ চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

ফরাসি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এসব বক্তব্য চরমপন্থা ও সন্ত্রাসী সংগঠনের পুরস্কার বলেও তিনি উল্লেখ করেন। পাশাপাশি এমন বক্তব্য হামাসের পক্ষে যায় বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি গাজায় ১১ দিনের ইসরায়েলি হামলায় অন্তত ২৫৩ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। যার মধ্যে অন্তত ৬৮ জনই শিশু। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো প্রায় ২ হাজার। এদিকে হামাসের পাল্টা হামলায় ইসরায়েলে ১৩ জন মারা গেছে।

Sharing is caring!