তথ্যমন্ত্রী কি দেশের খবর আসলেই রাখেন!

মাত্র কয়েকদিন আগেই বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন দেশের বাইরে এক অনুষ্ঠানে এক প্রকার টাকা-পয়সা ভিক্ষাই চেয়ে বসেছে। আর সেই মোমেনের দলের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলে বেড়াচ্ছেন, দেশে কোন ভিক্ষুক নেই। এবারই প্রথম না, এমন ‘গাজাখুড়ি’ কথা তিনি হরহামেশাই বলে থাকেন। যা শুনে দেশের মানুষ শুধু হাসেন আর কষ্টে দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলেন।

আজ দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা এখন বিশ্ব নেতারাও করেন। শুধু বিএনপি শেখ হাসিনার উন্নয়ন চোখে দেখে না। দেশের কোথাও আর ভিক্ষুককে দেখা যায় না। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের সব মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে।

তিনি বলেন, মিথ্যাচার ছাড়া বিএনপি আর কিছুই পারে না। রাজনৈতিকভাবে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে মিথ্যা বলায় অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এমনকি একে অপরকে টপকাতে বিএনপির কেন্দ্রীয় বেশিরভাগ নেতা মিথ্যাচার করেন।

বিএনপি নির্বাচনে যেতে ভয় পায় উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, দুই কারণে বিএনপি নির্বাচনে যেতে চায় না। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি এবং নানা অপকর্মের কারণে জনগণ থেকে দূরে সরে যাওয়ায় তারা নির্বাচনে যেতে চায় না।

তিনি আরও বলেন, দুঃসময়ের ত্যাগী নেতাকর্মীদের ক্ষমতায় আনা হবে। যারা শ্রম, মেধা ও ত্যাগ দিয়ে রাজনীতি টিকিয়ে রেখেছেন তাদেরই ক্ষমতায় আনা হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট কে এম হোসেন আলী হাসান সভাপতিত্ব এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ তালুকদার সঞ্চালনায় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান।

সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা প্রমুখ।

Sharing is caring!