চোরের মুখে নীতি কথা !

নিজস্ব প্রতিবেদক


বাংলাদেশে এখন যুবলীগ একটি ত্রাসের নাম। যার নাম শুনলে সাধারণ মানুষ আতঙ্কে থাকে। সেই যুবলীগের বিরুদ্ধে ঢের অভিযোগ। বিগত বছরগুলোতে রাজধানীতে সহ সারাদেশে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল যুবলীগের কর্মীরা। ২০১৯ সালে যুবলীগের ঢাকা মহানগরীর নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাট ও খালেদ গ্রেফতারের হওয়ার পর মানুষের মাঝে স্বস্তি নেমে আসে। অনেক ফুটপাত ও ব্যবসায়ীরা হাফ ছেড়ে বাঁচেন। কিন্তু যুবলীগের নেতৃত্ব বদল হওয়ার পর থেকে আবারও শুরু হয়েছে তাদের তাণ্ডব। সেই যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল তার এক বক্তব্যে জানালেন, অসহায়দের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে দেবে না যুবলীগ। তার এমন বক্তব্য শোনার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা ঝড় উঠেছে।

বুধবার এক ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথাগুলো বলেন। কিন্তু তার এমন কথার সঙ্গে যুবলীগের নেতৃত্বে থাকা কর্মী ও নেতাদের আদর্শের কোন মিল খুঁজে না পাওয়ায় জনমনে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তারা বলছেন, জামায়াত-বিএনপি-হেফাজতচক্রকে এদেশের অসহায়-গরীব মানুষের ভাগ্য নিয়ে যুবলীগ ছিনিমিনি খেলতে দেবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক। কিন্তু তাদের হাতে যে দেশের মানুষ নানাভাবে জিম্মি হয়ে পড়েছে সেটা কি উদ্ধার করতে পারবেন নিখিল ?
এসময় অনুষ্ঠানে দরিদ্র মানুষের মাঝে চাল,ডাল,তেল ও নানা সামগ্রী বিতরণ করা হয়। কিন্তু এই বিরতণের পণ্য নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে, এসব পণ্য আবার যুবলীগ কর্মীদের দিয়ে সাধারণ সম্পাদক চাঁদাবাজি করে আনেন নি তো? নাকি নিজের পকেট থেকে তারা দান করেছেন ?

Sharing is caring!