এবার মাহির দ্বিতীয় বিয়ের গুঞ্জন

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি আবারও বিয়ে করেছেন বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে! গাজীপুরের তরুণ রাজনীতিক-ব্যবসায়ী রাকিব সরকারকে মাহি বিয়ে করেছেন বলে নতুন করে এই গুঞ্জন শুরু হয়েছে। এ নিয়ে সিনেমাপাড়ায়ও চলছে নানা আলোচনা।

যদিও রবিবার (২০ জুন) বিয়ের বিষয়টি নাকচ করে দেন মাহিয়া মাহি। তিনি বলেন, ‘আমি বিয়ে করিনি, বিয়ের খবরটি একেবারে ভুয়া। তবে সে (রাকিব সরকার) আমার অনেক অনেক ভালো বন্ধু।’

এদিকে, এদিন দুপুরে সাবেক স্বামী অপুর সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করেন মাহি। ক্যাপশনে লেখেন, ‘তুমি না থাকার শোক অন্য কাউকে নিয়ে ভাবতে দেয় না। আমি তো তোমার দিকেই চেয়ে থাকি, চোখ তো অন্যদিকে যায় না।’ সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন একটি দুঃখসূচক ইমোজি।

কিছুদিন আগেই সাবেক স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের খবর জানান মাহিয়া মাহি। তার এক মাস যেতে না যেতেই না এবার ছড়াল মাহির দ্বিতীয় বিয়ের গুঞ্জন। আর এই গুঞ্জন পৌঁছে গেছে মাহির সাবেক স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপুর কানেও ।

তিনি বলেন, ‘গতকাল থেকে প্রচুর মানুষ আমাকে ফোন দিচ্ছে। সবাই এই কথাটাই বলছে। আমার আসলে বিষয়টি জানারও দরকার নাই। তবে সত্যি সত্যি যদি মাহি বিয়ে করে থাকে আমার তরফ থেকে বড় করে একটা কনগ্র্যাচুলেশন জানিয়ে দেবেন। বলবেন, নব দম্পতিকে আমার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা!’

২০১৬ সালের ২৪ মে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন ঢাকাই সিনেমার এই জনপ্রিয় নায়িকা। কিন্তু গত ২৩ মে রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া এক পোস্টে পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের কথা জানান মাহি। লেখেন, ‘এই পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো মানুষটার সাথে থাকতে না পারাটা অনেক বড় ব্যর্থতা। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শ্বশুর বাড়ির মানুষগুলোকে আর কাছ থেকে না দেখতে পাওয়াটা, বাবার মুখ থেকে মা জননী, বড় বাবার মুখ থেকে সুনামাই শোনার অধিকার হারিয়ে ফেলাটা সবচেয়ে বড় অপারগতা।’

পরদিন মাহি জানান, দুই বছর আগে ঘর ভেঙেছে তাদের। এতদিন বিষয়টি প্রকাশ করেননি। তিনি বলেন, ‘আমাদের বিচ্ছেদ হয়েছে প্রায় দুই বছর আগে। পরিবার ছাড়া বিষয়টি কেউ জানত না। হঠাৎ করেই সবাইকে জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা একসঙ্গে না থাকলেও দুজন বিভিন্ন জায়গায় একসঙ্গে ঘুরেছি, আড্ডা দিয়েছি। সেসব ছবি সামাজিক মাধ্যমেও এসেছে।’

সেই সময় মাহির এই বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেন তার স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপু। ঢাকা পোস্টকে তিনি বলেন, ‘সাক্ষাৎকারে যে বলা হয়েছে দুই বছর আগে মাহির সঙ্গে আমার বিচ্ছেদ হয়েছে কথাটি পুরোপুরি মিথ্যা। দুই বছর আগে যদি আমাদের বিচ্ছেদ হতো তাহলে কী আমরা এতদিন একসঙ্গে সংসার করতাম? বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াতাম?’

অপু বলেন, ‘গত রোজার শুরুতেও আমি আর মাহি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়িয়েছি। একসঙ্গে খুব ভালো সময় কাটিয়েছি। সত্য কথা বলতে সংসার করতে গেলে দুজনের মধ্যে নানা বিষয়ে মতের অমিল হতে পারে। দুই বছর আগে কিছু বিষয় নিয়ে আমাদের মধ্যে মান-অভিমান হয়েছিল। পরে তা ঠিকও হয়ে যায়। সমাজের অন্য আট-দশটা সংসারেও এমনটা হয়ে থাকে। কিন্তু নিউজের ভিউ বাড়ানোর জন্য কেউ যদি সেটাকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে তা খুবই দুঃখজনক।’

Sharing is caring!