রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প ‘থমকে’ গেল

বাংলাদেশের রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে ‘পেমেন্ট’ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে ‘দ্য ব্যাংক ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ফরেন ইকোনমিক অ্যাফেয়ার্স (ভিইবি) অব রাশিয়া’। বাংলাদেশ ব্যাংকের এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানান, সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংককে লেনদেন স্থগিত রাখা সংক্রান্ত একটি চিঠি পাঠায় ভিইবি। চিঠিতে ১ মার্চ থেকে ব্যাংকটির সঙ্গে লেনদেন বন্ধ রাখার কথা বলা হয়।

রাশিয়ার বেশ কয়েকটি ব্যাংকের ওপর বেলজিয়ামভিত্তিক আন্তঃব্যাংক আর্থিক লেনদেনের বার্তা প্রেরণের সুরক্ষিত নেটওয়ার্ক সুইফট এর নিষেধাজ্ঞার ভেতরই এ নির্দেশটি এলো।

বুধবার সুইফট তার সদস্য ব্যাংকগুলোর কাছে পাঠানো এক বার্তায় জানায়, নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা রাশিয়ার ৭ ব্যাংক ছাড়াও আরও কিছু আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে এ স্থগিতের তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে এক্সিম ব্যাংক অব রাশিয়া, ওরিয়েন্ট এক্সপ্রেস, রসগ্রোস্ট্রাক ব্যাংক ও ভেতেবে ক্যাপিটাল। বেলারুশের দুটি ব্যাংকও সুইফটের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, রাশিয়ার যেসব ব্যাংকের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে, সে সমস্ত ব্যাংকের সঙ্গে লেনদেনের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, সুইফট থেকে বাদ পড়া প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম ভিটিবি ব্যাংক, ব্যাংক অতক্রিতিয়ে, নোভিকম ব্যাংক, প্রমসিয়াজ ব্যাংক, ব্যাংক রোশিয়া, সভকম ব্যাংক এবং ভিইবি রয়েছে।

প্রসঙ্গত, রূপপুরে প্রকল্পে ১২০০ মেগাওয়াটের দুটি ইউনিট নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে প্রায় ১ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকার অর্থায়ন করবে ২২ হাজার ৫৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে রাশিয়ার ঋণসহায়তার পরিমাণ ৯১ হাজার ৪০ কোটি টাকা। ব্যাংকটি কড়া নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ায় দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের অগ্রগতিও এখন বাধাগ্রস্ত হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

সূত্র বলছে, রাশিয়ার ভেনশেকনম ব্যাংক বা ভিইবি ব্যাংকের তরফ থেকে কয়েকদিন আগে সুইফটের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকে একটি বার্তা পাঠানো হয়। ওই বার্তায় ভিইবি ব্যাংকের সঙ্গে আপাতত লেনদেন না করতে বলা হয়। সেজন্য বিলম্ব ফি দিতে হবে না বলেও আশ্বস্ত করা হয়। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন ব্যাংকেও লেনদেন না করার পরামর্শ দিয়ে বার্তা পৌঁছেছে বলে একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

Sharing is caring!