দুই জনকে বলাৎকার করে কারাগারে এসআই

রংপুরের পীরগাছায় দুজন বয়স্ক ব্যক্তিকে বলাৎকারের ঘটনায় থানার উপপরিদর্শক (এসআই) স্বপন কুমার রায়কে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮ মার্চ) বিকেলে তার বিরুদ্ধে মামলা হলে অভিযুক্ত এসআইকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরে সন্ধ্যায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) রাতে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিকৃত যৌনাচার ও বলাৎকারের অভিযোগ উঠলে তাকে থানা থেকে প্রত্যাহার (ক্লোজড) করে পুলিশ লাইনে নেওয়া হয়।

কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সরেস চন্দ্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত এসআই স্বপন কুমার রায় (৩০) নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বাসিন্দা। তার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় ২০-২৫ দিন আগে বাবার বাড়িতে চলে যান। বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে এসআই স্বপন কুমার রায় বিকৃত যৌনাচারে লিপ্ত হতে বুধবার রাতে এক ভ্যানচালককে (৫০) তার বাড়িতে ডেকে নেন। অচেতন করে ওই ব্যক্তিকে বলাৎকার করেন স্বপন। সারারাত সেখানে অবস্থানের পর বৃহস্পতিবার সকালে সেখান থেকে পালিয়ে বাড়িতে চলে যান ওই ব্যক্তি। পরে শারীরিকভাবে অসুস্থ অনুভব করলে সন্ধ্যায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ওসি সরেস চন্দ্র আরও জানান, পীরগাছার সদর ইউনিয়নের শুখানপুকুর গ্রামের দুই ব্যক্তি মৌখিকভাবে উপপরিদর্শক (এসআই) স্বপন কুমারের বিরুদ্ধে তাদেরকে বলাৎকার করেছেন বলে অভিযোগ করেন। অভিযোগকারীদের মধ্যে একজন ভ্যানচালক, তার বয়স ৫০। তাকে অসুস্থ অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতেই ভ্যানে করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছিল। অন্যজন পঞ্চাশোর্ধ নৈশপ্রহরী। এই দুজনের মধ্যে বুধবার রাতের কোনো এক সময় ভ্যানচালক বলাৎকারের শিকার হন। আর অন্যজন নৈশপ্রহরী, তিনি সাতদিন আগে ওই পুলিশ কর্মকর্তা দ্বারা বলাৎকারের শিকার হন।

এদিকে এ ঘটনা জানাজানি হয়ে পড়লে স্থানীয় রাজনৈতিকমহলসহ বিভিন্ন মহলে এটি আলোচনার বিষয় হয়ে ওঠে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার রাতে জেলা পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরীর নির্দেশে অভিযুক্ত পীরগাছা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) স্বপন কুমার রায়কে থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

Sharing is caring!