শর্ত সাপেক্ষে সৌদি যেতে পারবে প্রবাসীরা

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে বিশ্বের ২০টি দেশের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ রেখেছে সৌদি আরব। তবে বিশেষ ফ্লাইটে দেশটির সঙ্গে বাংলাদেশের যোগাযোগ এখনো অব্যাহত আছে। এবার জানানো হয়েছে, শর্তসাপেক্ষে ইকামা ও ওয়ার্ক ভিসাধারী প্রবাসী বাংলাদেশিরা দেশটিতে যেতে পারবেন।

বুধবার (২৬ মে) রিয়াদের বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সৌদি আরবের সঙ্গে বাংলাদেশের বিশেষ ফ্লাইটে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। শর্তসাপেক্ষে ইকামা ও ওয়ার্ক ভিসাধারী প্রবাসী বাংলাদেশিরা সৌদি ভ্রমণ করতে পারবেন। করোনার দুই ডোজ টিকা না নেওয়া থাকলে সব বিদেশি যাত্রীদের নিজ খরচে হোটেলে ৭ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। এছাড়া হোটেলে প্রবেশের আগে এবং কোয়ারেন্টাইন শেষে নমুনা পরীক্ষা করাতে হবে। ইকামাধারী যেসব বাংলাদেশি সৌদি প্রবাসী ‘তাওয়াক্কালনা’ অ্যাপসে ১টি বা ২টি টিকার মাধ্যমে ইমিউন প্রদর্শন করতে পারবেন তাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না। এগুলো বাংলাদেশের জন্য বিশেষ কোনো নির্দেশনা নয় বরং সব দেশের যাত্রীদের জন্য এসব নির্দেশনা প্রযোজ্য।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সৌদি আরবে বসবাসরত বাংলাদেশি অভিবাসীরা এ বিধিনিষেধের ফলে অতিরিক্ত আর্থিক ব্যয়ের সম্মুখীন হবেন বলে দূতাবাস বুঝতে পারছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে দূতাবাস বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে আর্থিক ব্যয় হ্রাসের বিভিন্ন প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বিষয়টি সুরাহার জন্য দূতাবাস ইতোমধ্যে সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রেখেছে।

একইসঙ্গে দূতাবাস বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের স্থানীয় প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলাদেশি যাত্রীদের জন্য ন্যূনতম ব্যয়ে হোটেল নির্ধারণ ও পিসিআর টেস্ট সম্পন্ন করার বিষয়ে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

Sharing is caring!