বিদেশ ভ্রমণে করলেই ৩ বছরের নিষেধাজ্ঞা সৌদির

নাগরিক প্রতিবেদক:

করোনাভাইরাস এবং এর নতুন ধরনের বিস্তার ঠেকাতে ‘লাল তালিকাভূক্ত’ দেশে ভ্রমণকারী নিজ নাগরিকদের বিরুদ্ধে তিন বছরের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দিয়েছে সৌদি আরব। ভ্রমণ বিধি লঙ্ঘন করে সৌদির যে নাগরিকরা করোনার ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত ‌‘লাল তালিকাভূক্ত’ দেশ সফর করেছেন, তারা এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বেন বলে মঙ্গলবার দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সির (এসপিএ) এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অজ্ঞাত এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এসপিএ বলছে, গত বছরের মার্চের পর চলতি বছরের মে মাসে প্রথমবারের মতো কর্তৃপক্ষের পূর্ব অনুমতি ছাড়া সৌদি আরবের কিছু নাগরিক নাগরিক বিদেশ ভ্রমণের সুযোগ পেয়েছিলেন; তারা ভ্রমণ বিধি-নিষেধ লঙ্ঘন করেছেন।

ওই কর্মকর্তা বলেছেন, যে কারও বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের প্রমাণ পাওয়া গেলে দেশে ফেরার পর তাকে আইনি জবাবদিহিতার মুখোমুখি হতে হবে এবং মোটা অঙ্কের জরিমানা করা হবে। এর পাশাপাশি আগামী তিন বছরের জন্য তার বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করা হবে।

করোনার বিস্তার ঠেকাতে আফগানিস্তান, আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, মিসর, ইথিওপিয়া, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, লেবানন, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক, ভিয়েতনাম এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতসহ বেশ কয়েকটি দেশে ভ্রমণ এবং ট্রানজিট নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সৌদি আরব।

মহামারি নিয়ন্ত্রণ এবং নতুন ধরনের বিস্তার ঠেকাতে না পারায় এসব দেশে সরাসরি অথবা অন্যদেশে ট্রানজিট নিয়ে নাগরিকদের ভ্রমণে এখনও নিষেধাজ্ঞা জারি রেখেছে সৌদি আরব।

উপসাগরীয় অঞ্চলের ৩ কোটি মানুষের বৃহত্তম এই দেশটিতে মঙ্গলবারও এক হাজার ৩৭৯ জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখ ২০ হাজার ৭৭৪ জনে পৌঁছেছে। এছাড়া মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন অন্তত ৮ হাজার ১৮৯ জন।

সূত্র: রয়টার্স।

Sharing is caring!