সিলেটে ছাত্রদল-যুবদলের শক্তি প্রদর্শন

সিলেট নগরে এবার হকিস্টিক হাতে ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মীরা মহড়া দিয়েছেন। শনিবার দুপুরে দুই সংগঠন আয়োজিত এক বিক্ষোভ মিছিলে এ দৃশ্য দেখা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, যুবদলের বিক্ষোভ মিছিলের সামনে ও পেছনে কয়েকজন নেতাকর্মীর হাতে হকিস্টিক দেখা গেছে। নিজেদের কর্মসূচি শেষে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের অনেকেই ওই মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। এর আগে ২৩ মে বিকেলে নগরের চৌহাট্টা এলাকায় ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে ধারালো অস্ত্র, রড, পাইপ ও লাঠি নিয়ে মহড়া দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে নগরের চৌহাট্টা এলাকার সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে থেকে জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে এ কর্মসূচি পালিত হয়। মিছিলটি জিন্দাবাজার এলাকা হয়ে নগরের কোর্ট পয়েন্টে এসে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে বেলা আড়াইটায় শেষ হয়।

ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল চলাকালে নগরের জিন্দাবাজার এলাকার মুক্তিযোদ্ধা গলির সামনে থেকে জেলা ও মহানগর যুবদলের উদ্যোগে আরেকটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। এ মিছিলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের একাংশও যোগ দেয়। পরে মিছিলটি নগরের জিন্দাবাজার এলাকা প্রদক্ষিণ করে কোর্ট পয়েন্টে গিয়ে এক বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সিলেট মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক নজিবুর রহমান। মহানগর যুবদলের সদস্যসচিব শাহ নেওয়াজ বক্ত চৌধুরী ও জেলা যুবদলের সদস্যসচিব মকসুদ আহমদের যৌথ সঞ্চালনায় জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মোমিনুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

তবে হকিস্টিক হাতে মিছিলে মহড়া দেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন জেলা যুবদলের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মোমিনুল ইসলাম ও মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী এহসান।

তারা জানান, এ রকম কোনো ঘটনা তাদের মিছিলে ঘটেনি। কেউ হকিস্টিক হাতে কোনো মহড়া দেননি। শান্তিপূর্ণ ও অহিংসভাবে নেতাকর্মীরা যৌক্তিক প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছেন।

এ বিষয়ে সিলেট মহানগরের কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী মাহমুদ বলেন, হকিস্টিক হাতে মিছিল দেওয়ার বিষয়টি পুলিশের চোখে পড়েনি।

Sharing is caring!