তালেবান গোয়েন্দা প্রধানকে হত্যার কথা স্বীকার আফগানিস্তানের

নাগরিক প্রতিবেদক
আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, দেশটির বিশেষ পুলিশ বাহিনী তালেবানের গোয়েন্দা
প্রধানকে হত্যা করেছে। এক বিবৃতিতে ওই মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সোমবার ভোররাতে লগার প্রদেশে তাকে হত্যা
করা হয়।তালেবান গোয়েন্দা প্রধানের নাম কারি শাকাসি বলে উল্লেখ করা যায় যার জিহাদি নাম ছিল ‘জালালি’। বিবৃতিতে
বলা হয়, “লগার প্রদেশে আফগান বিশেষ পুলিশ বাহিনীর এক বিশেষ অভিযানে তালেবান গোয়েন্দা প্রধান নিহত
হয়েছে।”


এ সময় জালালির দু’জন সহযোগীকে আটক এবং বেশ কিছু অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়। লগার প্রদেশের
মুহাম্মাদ আগাহি গ্রামে এ অভিযান চালানো হয় বলে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।
বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, তালেবান গোয়েন্দা প্রধান দেশের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে কাবুল প্রদেশে
সন্ত্রাসী অভিযানের সঙ্গে জড়িত ছিল।


তালেবানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে আফগানিস্তানে গঠিত হয়েছে গণবাহিনী যাতে যোগ দিয়েছেন অসংখ্য নারী
১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ছিল তালেবান। ২০০১ সালের শেষদিকে মার্কিন
নেতৃত্বাধীন সামরিক অভিযানে তালেবান শাসনের পতন হয়। এরপর দেশব্যাপী ব্যাক বিদ্রোহী তৎপরতা শুরু করে
তালেবান এবং তারা দাবি করে বিদেশি সেনা উপস্থিতির বিরুদ্ধে তাদের এ বিদ্রোহ। কিন্তু গত সপ্তাহ থেকে যখন
আমেরিকার নেতৃত্বাধীন বিদেশি সেনা প্রত্যাহার শুরু হয়েছে তখন তালেবান সরকারি বাহিনীর বিরুদ্ধে তাদের
হামলা জোরদার করেছে।


বর্তমানে আফগানিস্তানের অর্ধেকের বেশি এলাকা তালেবানের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং তারা আরো বেশি এলাকা
দখল করার জন্য ব্যাপক সামরিক অভিযান চালাচ্ছে। ‘গোটা দেশ দখলে নেয়ার কোনো অভিপ্রায় নেই’ বলে
তালেবান দাবি করলেও তাদের হামলার ধরন ও ব্যাপ্তি এর উল্টো চিত্রই তুলে ধরছে।

Sharing is caring!