যুক্তরাজ্যে রেকর্ড সংক্রমণ

ভারতে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনার ‌ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপে যুক্তরাজ্যে রেকর্ড কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে। গতদিন দেশটিতে ১১ হাজারের বেশি করোনা শনাক্ত হয়েছে; গত ফেব্রুয়ারির পর এই প্রথম দৈনিক সংক্রমণ ১০ হাজার ছাড়াল।

দেশটির স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত ১৬ পর্যন্ত এক সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া করোনা রোগীদের মধ্যে ৩৩ হাজার ৬৩০ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত। ওই সপ্তাহে শনাক্ত ৭৫ হাজার ৯৫৩ জন; যা তার আগের সপ্তাহের চেয়ে ৭৯ শতাংশ বেশি।

গত ৩০ মে যুক্তরাজ্যে সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছিল ৩ হাজার ২৪০ জনের। গত ১৮ দিনের ব্যবধানে এই দৈনিক সংক্রমণ তিন গুণের বেশি বেড়েছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত ৪৬ লাখের বেশি মানুষের মধ্যে মারা গেছেন ১ লাখ ২৭ হাজারের বেশি।

অন্যান্য দেশের মতো যুক্তরাজ্যেও করোনাভাইরাসের ডেলটা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপ বাড়ছেই। তবে সংক্রমণ বাড়লেও মৃত্যুর হার তুলনামূলক কম। গতদিন মারা গেছেন ১৯ জন। সরকারের আশঙ্কা, সংক্রমণ বৃদ্ধির পর মৃত্যুর হার আবারও বাড়তে পারে।

করোনার অতিসংক্রামক এই নতুন ধরনের কারণে দেশটিতে ২১ জুন বিধিনিষেধ প্রত্যহারের যে কথা ছিল গত সোমবার নিষেধাজ্ঞাগুলো প্রত্যহার চার সপ্তাহের জন্য স্থগিত করার ঘোষণা দিয়ে বলেছে, এর মধ্যে লাখ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার সময় পাওয়া যাবে।

ব্রিটিশ সরকার বলছে, ইংল্যান্ডে অস্বাভাবিক হারে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। যারা টিকা নেননি তাদের মধ্যে সংক্রমণ বেশি ছড়াচ্ছে। ব্রিটিশ সরকারের এই নথি থেকে জানা গেছে, প্রতি ১১ দিনে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্বিগুণ হচ্ছে।

যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থার প্রধান জেনি হ্যারিস রয়টার্সকে বলেছেন, ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের প্রকোপে দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে। হাসপাতালে ভর্তি ও মৃত্যু কম আশার বিষয় হলেও আমরা এই পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছি।’

Sharing is caring!