যুক্তরাষ্ট্রে দৈনিক ৩১৬ জন গুলিবিদ্ধ, মৃত্যু ১০৬

বন্দুক সহিংসতায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন গড়ে ৩৬০ জন গুলিবিদ্ধ হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

তিনি বলেন, তাদের মধ্যে ১০৬ জনের মৃত্যু হয়। শুক্রবার ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় তিনি এমন মন্তব্য করে বলেন, কাজেই যথেষ্ট হয়েছে, এখন এসব বন্ধ করতে হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের দাবি, আক্রান্ত ও ভুক্তভোগীদের প্রতি কংগ্রেস থেকে যথেষ্ট শোক প্রকাশ করা হয়েছে! এই বন্দুক সহিংসতা বন্ধে যে আইন প্রণয়ন করা হয়েছে, তাতেও ফাঁকফোকর রয়েছে। কাজেই কংগ্রেসকে কেবল শোক জানিয়ে ক্ষান্ত হলেই চলবে না, আরও বেশি কিছু করতে হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার বন্দুক সহিংসতার নিয়ন্ত্রণে সীমিত পদক্ষেপের ঘোষণা দিয়েছেন বাইডেন ও তার অ্যাটর্নি জেনারেল ম্যারিক গারল্যান্ড।

যুক্তরাষ্ট্রে অহরহ এলোপাতাড়ি গুলি, রক্তপাত ও আত্মহনন বন্ধে এটাকে প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করেছে হোয়াইট হাউস।

এ সময় ‘ভুতুড়ে বন্দুক’ নামে চালু ঘরে তৈরি অনিবন্ধিত ও হদিস মেলা ভার আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণে নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন জো বাইডেন।

তিনি বলেন, বন্দুক সহিংসতা এ দেশে মহামারি। এটি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও যুক্তরাষ্ট্রকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলছে।

নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে নতুন পদক্ষেপ নেওয়ায় প্রেসিডেন্টকে এখন আর কংগ্রেসের অনুমোদন নিতে হবে না।

নির্দিষ্ট ধরনের বন্দুকের জন্য বিধি প্রণয়ন, ব্যাকগ্রাউন্ড যাচাই জোরদার ও স্থানীয় সহিংসতা প্রতিরোধের চেষ্টা থাকবে এই পদক্ষেপে।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীতে প্রত্যেক নাগরিকের অস্ত্র বহনের অধিকার সুরক্ষিত থাকায় এবং অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের আইনকে অনেকেই তাদের সাংবিধানিক অধিকারের ওপর আঘাত বিবেচনা করায় বাইডেনের জন্য অনিবন্ধিত অস্ত্রের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া বেশ কষ্টসাধ্য হয়েই দাঁড়াবে।

Sharing is caring!